প্রচ্ছদ

শোকের মাসে ঝাঁকজমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নাহিদ!

২৭ আগস্ট ২০১৯, ০০:৩৮

শুভ প্রতিদিন

প্রতিদিন ডেস্ক :
সারাদেশের মানুষ শোকে পাথর। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট কিছু অশৃংখল সামরিক বাহিনী জাতিরজনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান রহমানকে স্বপরিবারে হত্যা করে।

২০০৪ সালের এই আগস্ট মাসের ২১ তারিখ গ্রেনেড হামলা হয়। এই হামলায় অল্পের জন্য বেঁচে চান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এই আগস্ট মাস আসলেই বাংলাদেশের মানুষ বিভিন্ন স্থানে মিলাদ, দোয়া মাহফিল ও শোক সভার আয়োজন করেন।

১৫ আগস্ট সরকারি ভাবে জাতীয় শোক দিবস পালন করা হয়। অন্যান্য অনুষ্ঠান থেকে আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা বিরত থাকেন। কিন্তু এই আওয়ামীলীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য, সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ তার নির্বাচনী এলাকা গোলাপগঞ্জ -বিয়ানীবাজারে বিভিন্ন ঝাঁকঝমকপূর্ণ অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন।

এই শোকের মাসে হাসি মুখে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণ করেন। এসব অনুষ্ঠানের প্রত্যেকটিতে রয়েছে রঙিন ব্যানার। গতকাল সোমবার (২৬ আগস্ট) দুপুর ১২টায় গোলাপগঞ্জ উপজেলার ঢাকাদক্ষিণ বহুমুখী উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজের নব নির্মিত উদ্বোধনকৃত ভবন দুটির মধ্যে একটি তিনতলা ভবনের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে নুরুল ইসলাম নাহিদ প্রধান অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেন।

সরেজমিন গিয়ে দেখা যায়, এই অনুষ্ঠানের ব্যানারটি ঝলমলে রঙিন। সবাই ফুল নিয়ে দাড়ি আছে প্রধান অতিথিকে বরণ করার জন্য। প্রধান অতিথি আসামাত্র স্কুল কর্তৃপক্ষ ফুল দিয়ে সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদকে গ্রহণ করে। তিনিও তা হাসিমুখে গ্রহণ করেন।

নাহিদের এসব কর্মকান্ডের মূলধারার আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীরা অবাকই হয়েছেন। অনেকে সামাজিক সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ক্ষোভ নিয়ে স্ট্যাটাসও দিয়ে সমালোচনা করেছেন। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে গোলাপগঞ্জ সদর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুস সামাদ জিলু এসব অনুষ্ঠানের আয়োজকদের কাছে প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে বলেন, আওয়ামীলীগের কতিপয় নেতাকর্মী এসব অনুষ্ঠানের আগে ভাবা উচিত ছিল শোকের মাস চলছে।

শোকের মাসের পরে এসব অনুষ্ঠানের আয়োজন করা যেত। এছাড়াও তিনি নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপিকে প্রশ্ন করে বলেন, এমপি মহোদয় (নুরুল ইসলাম নাহিদ) কেন উপজেলা প্রাঙ্গণে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতি থাকা সত্ত্বেও ফুল দিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন নি। এই ফেইসবুক স্ট্যাটাসে উপজেলা যুবলীগের যুগ্ম আহবায়ক রুহেল আহমদ কমেন্টে লিখে যারা বঙ্গবন্ধু ও আওয়ামীলীগকে মন থেকে ধারণ ও লালন করেনি তাদের ধারা এটা সম্ভব।

উপজেলা আওয়ামীলীগের ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক মিজানুর রহমান রিংকু, ফুলবাড়ি ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের যুগ্ম আহবায়ক হানিফ খান সহ, উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এম এ ওয়াদুদ এমরুল সহ বেশ কয়েকজন নেতাকর্মী এ নিয়ে ফেইসবুকে ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

এর আগেও ২৮ জুলাই গোলাপগঞ্জ উপজেলার বন্যাক্রান্তদের মাঝে প্রধানমন্ত্রী ও বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনার পক্ষ থেকে ত্রাণ বিতরণে ফুল দিয়ে স্টেইজ সাজিয়ে নেতাকর্মীদের সমালোচনায় সম্মুখীন হন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ এমপি।