প্রচ্ছদ

নির্মাণ কাজে ব্যাপক ত্রুটির অভিযোগ, উদ্বোধনের অপেক্ষায় কানাইঘাটের বড়চতুল ইউপি কমপ্লেক্স

২৪ এপ্রিল ২০১৯, ২১:০২

শুভ প্রতিদিন

আলিম উদ্দিন, কানাইঘাট: উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে কানাইঘাট উপজেলার ৫নং বড়চতুল ইউনিয়ন পরিষদ কমপ্লেক্স ভবন। ২০১৭ সালের ১০ জুন ভবনটির নির্মাণ কাজের ভিত্তি প্রস্থর স্থাপন করেছিলেন সাবেক সাংসদ ও বিরোধী দলীয় হুইপ সেলিম উদ্দিন। স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের তত্ত্বাবধানে ভবনটির নির্মাণ কাজ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান মেসার্স আক্তার ট্রেডার্স। প্রায় ৯০ লাখ ৫০ হাজার টাকা ব্যয়ে উক্ত ভবনটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন হচ্ছে। তবে অনেক ত্রুটি রেখে নির্মাণ কাজ প্রায় শেষ করা হয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয়দের।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, ভবন নির্মাণ কাজে ব্যাপক ত্রুটি রয়েছে। এসব ত্রুটি ও অনিয়ম দ্রুত সম্পাদন করার জন্য বড়চতুল ইউনিয়ন পরিষদের পক্ষথেকে সম্প্রতি কানাইঘাট উপজেলা প্রকৌশলীর কাছে লিখিত ভাবে অবহিত করা হয়। উপজেলা প্রকৌশলী একে এম, রিয়াজ মাহমুদ বড়চতুল ইউপি কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণে নানা অনিয়ম ও ত্রুটির অভিযোগের ভিত্তিতে সরেজমিনে তদন্ত করে সত্যতা পাওয়ায় গত ৮ এপ্রিল ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স আক্তার ট্রের্ডাসের প্রো. জামাল আহমদ চৌধুরীকে ৭ দিনের মধ্যে ত্রুটি মূক্ত করে দিতে লিখিতভাবে অবহিত করেন। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানটি অধ্যাবদি পর্যন্ত উক্ত ভবনের নির্মাণ কাজের ত্রুটি মুক্ত করেনি।
এ ব্যাপারে স্থানীয় বড়চতুল ইউপি চেয়ারম্যান মাওলানা আবুল হোসেন চতুলী বলেন, বড়চতুল ইউপি কমপ্লেক্স ভবন নির্মাণ করে দেওয়ার জন্য ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠানকে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তরের পক্ষ থেকে ১ বছরের সময় দেওয়া হয়েছিল। কিন্তু ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স আক্তার ট্রেডার্স প্রায় দুই বছর সময় নিয়েও ভবনটি মানসম্পন্ন ভাবে নির্মাণ করে দিতে পারছেনা।
তিনি ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেন, ইউনিয়ন বাসীর দীর্ঘদিনের দাবী ছিল ইউপি ভবনটি উদ্বোধন হওয়ার পর ইউনিয়নের জনসাধারণ ইউপি কমপ্লেক্স থেকে তাদের সব ধরনের নাগরিক সুবিধা পাবেন। সেই দাবীর প্রতি সম্মান জানিয়ে স্থানীয় সরকার প্রকৌশল অধিদপ্তর একটি ভবণ নির্মাণ করে দিচ্ছে। কিন্তু সেই ভবনের নির্মাণ কাজের ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান মেসার্স আক্তার ট্রেডার্স নানা অনিয়নের মাধ্যমে ভবনটির নির্মাণ কাজ সম্পন্ন করছেন। তিনি আরো বলেন, ভবনের রংয়ের কাজের ফিনিশিং ডিজাইন স্পেসিফিকেশন মোতাবেক হয় নাই। এছাড়া সিড়ির রেলিংয়ে জিআই পাইপের পরিবর্তে নি¤œমানের এমএস পাইপ লাগানো হয়েছে, জল ছাদের স্লুপ ঠিকমত হয়নি। ফিনিশিংয়ের কাজের মান খুবই খারাপ। স্যানিটারীর কাজে লংপান অর্ন্তভুক্ত বিআইএসএফ আইটেমের পরিবর্তে নি¤œমানের মালামাল লাগানো হয়েছে। এছাড়া ওয়াল টাইলসের সাইজ ৩০০-৪৫০মি:মি: এর পরিবর্তে ২৫০-৩০০মি:মি: লাগানো হয়েছে যাহা স্পেসিফিকেশন বহির্ভূত। এছাড়া দরজা-জানালার কাঠ নি¤œমানের লাগানো হয়েছে। যাহা কোন ভাবেই মেনে নেওয়া যায়না।
স্থানীয় এলাকাবাসী জানান, বড়চতুল ইউপি কমপ্লেক্স ভবন থেকে ইউয়িনবাসী তাদের সব ধরনের নাগরিক সুবিধা পাওয়ার কথা। কিন্তু ভবনটি সঠিক সময়ে নির্মাণ না হওয়ায় ইউনিয়নবাসী ডিজিটাল সেবাসহ বহু ধরনের সেবা বঞ্চিত রয়েছেন। তাই জরুরী ভিত্তিতে ভবনটি উদ্বোধন করে ডিজিটাল সেবা চালু করার দাবী জানান তারা।
এ ব্যাপারে কানাইঘাট উপজেলা প্রকৌশলী একে এম, রিয়াজ মাহমুদ বলেন, উক্ত ভবনের নির্মাণ কাজে ত্রুটি দেখে ঠিকাদারী প্রতিষ্টানকে আমরা ৭ দিনের সময় দিয়ে চিঠি দিয়েছিলাম। তিনি বলেন, ভবনটির কাজের সকল ত্রুটি মূক্ত করে আমরা শীগ্রই উদ্বোধন করবো।

 

 

K/M