প্রচ্ছদ

নগরে সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলনের নাগরিকবন্ধন
স্কলার্সহোমের ছাত্র ফাবিয়ানের উন্নত চিকিৎসার ব্যয়ভার স্কুল কর্তৃপক্ষকে বহন করতে হবে

22 June 2019, 21:28

শুভ প্রতিদিন

প্রতিদিন ডেস্ক :
সিলেট নগরের অভিজাত শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্কলার্সহোম স্কুল এন্ড কলেজের চতুর্থ শ্রেণির শিক্ষার্থী ফাবিয়ান চৌধুরীর উন্নত চিকিৎসার সমস্ত ব্যয়ভার ‘স্কুল’ কর্তৃপক্ষকে বহন ও দুর্ঘটনার কারণ অনুসন্ধানে নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠনের দাবিতে গতকাল শনিবার বিকেল সাড়ে ৫টায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অনুষ্ঠিত হয় ‘সংক্ষুব্ধ নাগরিকবন্ধন’।

সিলেট নগরের বেসরকারি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান স্কলার্সহোমর শিবগঞ্জ ক্যাম্পাস থেকে চতুর্থ শেণির শিক্ষার্থী ফাবিয়ান চৌধুরী (১০)-কে গত ১৭ জুন মুর্মূর্ষু অবস্থায় স্কুল কর্তৃপক্ষ উদ্ধার করে তাঁর বাবাকে খবর দেন। পরে শিশুটির ফাহিম চৌধুরী ফাবিয়ানকে নগরের আল হারামাইন হাসপাতালে নিয়ে যান। এরপর সঙ্কটাপন্ন অবস্থায় উন্নত চিকিৎসার জন্য ফাবিয়ানকে ঢাকায় প্রেরণ করা হয়েছে। পাঁচ দিন হয়ে গেছে ফাবিয়ানের শারীরিক অবস্থার উন্নতি হয়নি। এই ঘটনা সম্পর্কে পরিবারের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, তাঁরা শুনেছেন ফাবিয়ান স্কুলের ৫ম তলার ছাদ থেকে পড়ে অচেতন হয়েছে। ফাবিয়ানের এই দুর্ঘটনা সিলেটের অভিভাবক মহলে উৎকন্ঠা সৃষ্টি করেছে। স্কুল কর্তৃপক্ষের নির্লিপ্ততা নাগরিকরা সংক্ষুব্ধ হয়েছেন।

এ অবস্থায় গতকাল শনিবার ‘সংক্ষুব্ধ নাগরিকবন্ধন’ কর্মসুচি পালন করে ‘সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলন’। গত দেড় দশক থেকে এই সংগঠনটি সুস্পষ্ট বক্তব্য নিয়ে সিলেটে নাগরিক আন্দোলন করছে। সিলেট অঞ্চলের বিভিন্ন স্পর্শকাতর নাগরিক ইস্যু, যা নিয়ে অন্য নাগরিক সংগঠন কর্মসূচি প্রণয়নে ইতস্থত করে সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলন সে সব ইস্যুতে কথা বলে। বিএনপি-জামাত আমলে দরগা-ই-হজরত শাহজালাল (রহ.) মাজার প্রাঙ্গণে গ্রেনেড হামলার পর এই সংগঠনের উদ্যোগে প্রথম ‘মানববর্ম’ নামে সংক্ষুব্ধ প্রতিবাদ জানানো হয় ।

সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলনের সমন্বয়ক আব্দুল করিম কিম নাগরিকবন্ধন কর্মসুচির সূচনা বক্তব্যে ফাবিয়ানের পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা প্রকাশ করে বলেন, ফাবিয়ান তোমার জন্য আমাদের হ্নদয়ে ও বিবেকে রক্ত ঝরছে। আমরা তোমার দ্রুত আরোগ্য কামনা করি। আমরা তোমার পাশে আছি।

আব্দুল করিম কিম আরো বলেন, দুর্ঘটনা যে কোন সময়, যে কোনো জায়গায় ঘটতে পারে। শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান কেন নিজের ঘরেও দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। কিন্তু সেই দুর্ঘটনার কারণ তো জানতে হবে। কারণ উদ্ঘাটন হলে স্পষ্ট হবে ফাবিয়ান কেন জীবনমৃত্যুর সন্ধিক্ষণে আছে? সে কী নিছক একটি দুর্ঘটনার স্বীকার? ফাবিয়ানের সংকটাপন্ন জীবনের জন্য প্রতিষ্ঠানের দায়িত্বহীন নিরাপত্তা ব্যাবস্থা কতটুকু দায়ি তা খুঁজে বেড় করতে হবে। ঘটনার সাথে সাথেই অভিভাবক প্রতিনিধি ও নাগরিক প্রতিনিধি নিয়ে নিরপেক্ষ তদন্ত কমিটি গঠন করা উচিৎ ছিল। তিনি বলেন, এখন রাষ্ট্রের উচিৎ অবিলম্বে বিচার বিভাগীয় তদন্ত কমিটি গঠন করে ঘটনার কারন খুঁজে বেড় করা। একিই সাথে স্কুল কর্তৃপক্ষকে স্কুল ক্যাম্পাস থেকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার হওয়া ফাবিয়ানের উন্নত চিকিৎসা সেবার সম্পূর্ণ ব্যয়ভার বহন করতে হবে।
নাগরিকবন্ধন কর্মসূচিতে সিলেট নগরের বিভিন্ন সামাজিক-সাংস্কৃতিক-রাজনৈতিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দ অংশগ্রহন করেন। সুপ্রিমকোর্টের আইনজীবি গোলাম সোবহান চৌধুরীর সভাপতিত্বে ঘটনার বিবরণ তুলে ধরেন পরিবারের পক্ষ থেকে ফাবিয়ানের মামা সৈয়দ ফয়সল আহমেদ।

সৈয়দ ফয়সল আহমেদ বলেন, ফাবিয়ান পাঁচ তালা থেকে পড়ে গেছে এমন খবর পেয়ে আমরা পাগলের মত স্কুলে ছুটে যাই। দুর্ঘটনার পরপরই ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে আসা সাংবাদিক শাহ মুজিবুর রহমান জকন বলেন, ফাবিয়ানকে ছাঁদ থেকে ভূতে ফেলা দেয়ার কথা বলেছেন দায়িত্বশীলদের কেউ কেউ। এছাড়া স্কলার্স হোম স্কুল ও কলেজ-এর বিভিন্ন শাখার অভিভাবকদের মধ্য থেকে রাখা বক্তব্যে প্রতিষ্ঠানের বিভিন্ন অসঙ্গতি তুলে ধরে নিজেদের ক্ষোভ প্রকাশ করেন মফিজুর রহমান বারেক, মীর সাইদুল আহরার, ব্যাংক কর্মকর্তা জায়েদুল বাহার রাসেল ও কাশেম আজাদ, মুজাহিদ খান গুলশান, নুরুল ইসলাম সাজুয়ান প্রমুখ।

ফাবিয়ানের পরিবারের প্রতি সহমর্মিতা ও সংক্ষুব্ধ নাগরিক আন্দোলনের দাবির সাথে সংহতি প্রকাশ করে ‘সংক্ষুব্ধ নাগরিকবন্ধন’ কর্মসুচিতে বক্তব্য রাখেন সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতি মিশফাক আহমদ মিশু, সিলেট ক্যাবল সিস্টেম লিমিটেড-এর ব্যাবস্থাপনা পরিচালক রাজু আহমদ বাবলা, চারুশিল্পী সমন্বয় পরিষদের সদস্য সচিব সামছুল বাসিত শেরো, বাসদ ( মার্কসবাদী ) সদস্য হুমায়ুন খাঁন শোয়েব, বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেট শাখার যুগ্ম সম্পাদক জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক ছামির মাহমুদ, পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কাসমির রেজা, শিশু সংগঠক বিমান তালুকদার, গোবিন্দগঞ্জ ডিগ্রি কলেজের সহযোগী অধ্যাপক জান্নাত আরা খান পান্না, কৃষিবিদ মোজাদ্দিদ আহমদ, চারণ সাংস্কৃতিক কেন্দ্র রুবাইয়াৎ আহমদ, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট সিলেট নগর শাখার সভাপতি সঞ্জয় কান্ত দাশ প্রমুখ।