প্রচ্ছদ

জেলা পরিষদ সদস্য মুজিবকে নিজ গ্রামে অবাঞ্চিত ঘোষণা !

14 August 2019, 01:42

শুভ প্রতিদিন

প্রতিদিন ডেস্ক :
নিজ গ্রামে অবাঞ্চিত ঘোষণা করা হল জেলা পরিষদ সদস্য এম. মুজিবুর রহমান মুজিবকে।

পবিত্র ঈদুল আজহার দিন গ্রামের ঈদগাহ ময়দানে সকল মুসল্লীদের সর্বসম্মতিক্রমে অবাঞ্চিত ঘোষণা কার্যকর করা হয়। এম. মুজিবুর রহমান মুজিব গোলাপগঞ্জ উপজেলার কেওটকোনা গ্রাম নিবাসী মৃত ইসমাঈল আলীর ছেলে।

জানাগেছে, গ্রামের একটি রাস্তা ঠিকে রাখার স্বার্থে গ্রামবাসী বড় গাড়ি প্রবেশ না করতে রাস্তায় ব্যারিকেড দিয়ে রাখে। কিন্তু জেলা পরিষদ সদস্য মজিবুর রহমান নিজ গাড়ি নিয়ে প্রবেশকালে বাধাপ্রাপ্ত হলে তিনি তা ভেঙ্গে ফেলে গ্রামে প্রবেশ করেন।

এ সময় গ্রামবাসীরা আপত্তি জানালেও তিনি কারো বাধা না শুনে উল্টো মুরুব্বীদের উদ্দেশ্যে অশ্লীল মন্তব্য করেন বলে অভিযোগ করেছেন গ্রামবাসী। এক পর্যায়ে গ্রামের সবাই মিলে মিুজিবুর রহমানের গাড়ি আটকে তিনি গ্রামবাসীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন।

সে সাথে সবাইকে দেখে নেওয়ার হুমকীও প্রদান করেন।

এর জের ধরে সোমবার গোলাপগঞ্জ উপজেলাধীন ১০ নং উত্তর বাদেপাশা ইউনিয়নের ঐতিহ্যবাহী বৃহত্তর বাগলা (ইউনিয়নের ৪,৫ এবং ৬ নং ওয়ার্ডের) গ্রামের সকল মুসল্লীগণ বাগলা শাহী ঈদগাহ ময়দানে সকাল ৮ ঘটিকার সময় পবিত্র ঈদুল আযহার নামাজ আদায় করেন। নামাজ শেষে দেশ ও জাতীর জন্য দোয়া কামনা করা হয়। ঈদের নামাজের পূর্বে গ্রামের মুরব্বীগণ এলাকার বিভিন্ন সমস্যা সম্পর্কে আলোচনা করা হলে ঈদগাহ ময়দানে উপস্থীত সকলকে অবহিত করেন যে, এলাকার কেওটকোনা গ্রাম নিবাসী মৃত ইসমাঈল আলীর ছেলে এম. মুজিবুর রহমান মুজিব বৃহত্তর বাগলা এলাকার মুরব্বীগণ কে নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করার দায়ে সর্ব সম্মতিক্রমে অত্র এলাকায় এম. মুজিবুর রহমান মুজিব কে অবাঞ্চিত ঘোষনা করা হয়। তাহার পরিবারের কোন সদস্যের সাথে এলাকার কোন ব্যক্তি চলা ফেরা না করার জন্য নিষেধ করা হয়।

এ ব্যাপারে উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি আলিম উদ্দিন বলেন, এলাকার সকল মুরুব্বীয়ানদের সর্বসম্মতিক্রমে এই সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে। সেই সাথে সিদ্ধান্তক্রমে মুজিবুরের পরিবারের সাথে সকল প্রকার যোগাযোগ বন্ধের নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে।

এ ব্যপারে জানতে অভিযুুক্ত মুজিবুর রহমানের মোবাইল ফোনে কল দেওয়া হলেও তিনি ফোন রিসিভ না করায় মন্তব্য আদায় করা সম্ভব হয়নি।